দৈনিক মতামত

মত প্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী

ব্যাংকিং মোবাইল ব্যাংকিং

৩ মিনিটে নগদ মুবাইল ব্যাংকিংক একাউন্ট খোলার নিয়ম!

আজকে আমি নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম ও নগদ একাউন্টের সুবিধা-অসুবিধাও নিয়ে আলোচনা করবো। আসুন! প্রথমে আমরা নগদ সম্পর্কে জেনে নিবো!

নগদ কি?

নগদ হচ্ছে বাংলাদেশ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মোবাইল ফোন ভিত্তিক ডিজিটাল আর্থিক সেবা যা অর্থ আদান-প্রদানের একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। এটি থ্রার্ড ওয়েভ টেকনোলজি লিমিটেড কর্তৃক পরিচালিত। বাংলাদেশ ডাক বিভাগের পূর্বে চালুকৃত পোস্টাল ক্যাশ কার্ড এবং ইলেকট্রনিক মানি ট্রান্সফার সিস্টেম (ইএমটিএস)-এর নতুন সংস্করণ এটি।

নগদ প্রবর্তিত হয় ১১ নভেম্বর ২০১৮ ইং।
১৩ মাস আগে সম্পর্কিত ব্র্যান্ড বাংলাদেশ ডাক বিভাগ বাজার জাতীয় ট্যাগ লাইন ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন ওয়েবসাইট http://nagad.com.bd থেকে।

যে কোনো মোবাইল ফোনে নগদ অ্যাকাউন্ট খুলে একজন গ্রাহক দেশের যে কোনো স্থান থেকে নিজের মোবাইলে অর্থ জমা, উত্তোলন এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে অর্থ স্থানান্তর সহ বিভিন্ন বিল পরিশোধ করতে পারেন। নগদ-এর সদর দফতর ঢাকার বনানী এলাকার কামাল আতাতুর্ক এভিনিউতে অবস্থিত।

নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

নগদ একাউন্ট খোলার দুইটি নিয়ম রয়েছে। ১)আপনার যদি এন্ড্রয়েড মুবাইল থাকে তাহলে অ্যাপ বা সফটওয়্যার এর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন। ২)অথবা আপনি আপনার নিকটস্থ নগদ এজেন্ট থেকেও নগদ একাউন্ট খুলতে পারবেন। তো জেনে নিন বিস্তারিত…

নগদ অ্যাপ্স এর মাধ্যমে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

এজেন্টদের দ্বারা একাউন্ট খুলতে অনেকেই পছন্দ করেন না৷ কেননা এজেন্টদের কাছে গেলে দাড়িয়ে থাকা লাগে, সিরিয়াল দেওয়া লাগে।আরো কত কি ঝামেলা।তাই নগদ দিচ্ছে আপনাকে বাড়তি এক সুবিধা।অর্থাৎ অ্যাপে্সর মাধ্যমে আপনি অতি সহজে নগদ একাউন্ট খুলতে পারেন। সেজন্য আপনাকে প্রথমে প্লে স্টোর থেকে নগদ অ্যাপস্ টি ডাউনলোড করে নিতে হবে। অ্যাপ্সটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুনএখানে ক্লিক করে অ্যাপ্সটি ডাউনলোড করে নিন।

ডাউনলোড হয়ে গেলে প্রবেশের সাথে সাথে এই পিকচার টি চলে আসবে।আপনি আপনার যে নাম্বার দিয়ে নগদ একাউন্ট খুলতে চান, সে নাম্বারটি মুবাইল নাম্বার অপশনে বসান।

যে নাম্বার দিয়ে নগদ একাউন্ট খুলতে চান, সে নাম্বারটি এখানে দিন।

সঠিক নাম্বারটি বসানোর পর পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

২}পরবর্তী ধাপে ক্লিক করার পর সিম অপারেটর তথা আপনি যে সিমের নাম্বার দিয়ে নগদ একাউন্ট খুলবেন তার নামের উপর ক্লিক করুন।অর্থাৎ আপনার সিম যদি গ্রামীণ হয় তাহলে গ্রামীণের উপর, রবি হলে রবির উপর, এয়ালটেল হলে এয়ারটেললের উপর, টেলিটক হলে টেলিটকের উপর, বাংলালিংক হলে বাংলালিংক এর উপর ক্লিক করুন।

আপনার সিম দিয়ে একাউন্ট খুলতে চান তার নামের উপর ক্লিক করুন

সঠিক অপারেটর(সিমের নাম) এর উপর ক্লিক করা শেষে পরবর্তী ধাপে ক্লিক।

৩}পরবর্তী ধাপে ক্লিক করার পর এন,আই,ডি কার্ডের অপশন দেখতে পাবেন। আপনি আপনার এন.আই.ডি কার্ডের উভয় সাইটের ছবি স্ক্যান করে সঠিকভাবে বসাবেন।

ছবির আইকোনে ক্লিক করেই ছবি বসাতে পারবেন

৪]ছবি তোলা শেষে আপনার স্ক্যানিং করা তথ্য প্রদর্শিত হবে।

আপনার এন,আই,ডি কার্ডের তথ্য স্কিনের মাধ্যমে প্রদর্শিত হওয়ার পর আপনি পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

৫}পরবর্তী ধাপে আসার পর আপনার অন্যান্য তথ্য গুলো সঠিক ভাবে উপস্থাপন করবেন।

সঠিক তথ্য উপস্থাপনা করুন

সঠিক তথ্য উপস্থাপনা করার পর পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

৬}পরবর্তী ধাপে আসার পর আপনার লিঙ্গ ও লেনদেনের উদ্দেশ্য এবং পেশা এবং আপনি মুনাফা গ্রহিতা কি না তা নির্বাচন করুন।

অন্যান্য তথ্য নির্বাচন করুন

অন্যান্য তথ্য সঠিক ভাবে নির্বাচন করার পর পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

৭}পরবর্তী ধাপে আসার পর আপনার নিজস্ব ছবি তুলবেন বা চয়েজ করবেন এবং সঠিকভাবে বসাবেন।

আপনার ছবি তুলুন বা চয়েজ করুন

সঠিক ভাবে ছবি দেওয়ারপর পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

৮}পরবর্তী ধাপে আসার পর নগদ আপনাকে অনেক শর্তাবলী প্রদর্শন করাবেন। আপনি চুক্তি মেনে সাক্ষর প্রদান করবেন।

চুক্তি মেনে সাক্ষর দিন

নগদের সকল চুক্তি মান্য করে সাক্ষী দেওয়ার পর পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

৯}পরবর্তী ধাপে আসার পর আপনার দেওয়া এন.আই.ডি কার্ডের উভয় পাশের ছবি, আপনার ছবি সাক্ষর সঠিকভাবে দেওয়া হয়েছে কি না তা নগদ আপনাকে জানিয়ে দিবে।সঠিক ভাবে হয়ে থাকলে সফল চিহ্ন প্রদর্শন করানো হবে।

সফল চিহ্ন প্রদর্শিত হলো

আপনার দেওয়া এন.আই.ডি কার্ডের উভয় পাশের ছবিতে সফল চিহ্ন আসার পর পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

১০}পরবর্তী ধাপে আসার পর আপনার দেওয়া ব্যাক্তিগত বৃত্তান্ত একইভাবে প্রদর্শিত হবে।

আপনার দেওয়া ব্যাক্তিগত বৃত্তান্ত একইভাবে প্রদর্শিত হলো

আপনার দেওয়া ব্যাক্তিগত বৃত্তান্ত একইভাবে প্রদর্শিত হওয়ার পর পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

১১}পরবর্তী ধাপে ক্লিক করার পর সাথে সাথে একটি ওটিপি সম্বলিত এসএমএস পাঠানো হবে। যেটাকে আমরা ভেরিফিকেশন কোড নামে চিনে থাকি।

ওটিপি(ভেরিফিকেশন) কোড দিন।

ওটিপি বা ভেরিফিকেশন কোডটি দিন।এবং পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

১২}পরবর্তী ধাপে আসার পর আপনার মনে থাকবে এমন একটি শক্তিশালী পিন সেট করবেন।

নগদ পিন নাম্বার

১৩}আপনার পিন সেট করার সাথে সাথে নগদ একাউন্ট খোলা হয়ে যাবে।

মুবাইল অ্যাপ্স দিয়ে নগদ একাউন্ট খোলা সম্পূর্ণ হলো।

১৪}অতপর নিকনেম এবং প্রোফাইল ফটো সেট করে দিবেন।

নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম
নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

সেভ লেখায় ক্লিক করলেই আপনার নগদ একাউন্ট খোলা সম্পূর্ণ হবে।

এই হলো অ্যাপসের মাধ্যমে নগদ একাউন্ট খোলার বিস্তারিত পদ্ধতি।

নগদ একাউন্টের সুবিধা

অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর তুলনায় নগদ মোবাইল ব্যাংকিংক এ রয়েছে তুলনা মূলক অনেক বেশি সুবিধা। তো চলুন আমরা জেনে নিব নগদ মোবাইল ব্যাংকিক এর সুবিধা সমূহ।

  1. নগদ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে দৈনিক ১০ বার ক্যাশআউট করতে পারবেন।
  2. প্রতিবার ক্যাশ-আউটে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা ক্যাশ-আউট করতে পারবেন।
  3. নগদ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে দৈনিক ১০ বার ক্যাশ-ইন করতে পারবেন।
  4. প্রতিবার ক্যাশ-ইন সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা ক্যাশ-ইন করতে পারবেন।
  5. নগদ মুবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে খুব সহজেই সেন্ড মানি করতে পারবেন।
  6. নগদ মুবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে খুব সহজে রিসার্জও করতে পারবেন।
  7. নগদ একাউন্টে ক্যাশ-ইন সম্পূর্ণ ফ্রী
  8. নগদ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্টে প্রতি ১ হাজার টাকা ক্যাশ-আউটে মাত্র ১৮ টাকা খরচ নিবে।আর অ্যাপস এর মাধ্যমে হলে মাত্র ১৬ টাকা খরচা নিবে।

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর মুনাফা

নগদ-এর সকল নিয়মিত গ্রাহক নিম্নের ছকের উল্লিখিত হারে মুনাফা পাবেন-

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সঞ্চয় হার ও মুনাফা

নিম্নে বর্ণিত হারে নগদ কাস্টমাররা মুনাফা বা ইন্টারেস্ট পাবেন। তবে, এক্ষেত্রে কিছু শর্ত রয়েছে। সেগুলো নিচে দেওয়া হলো।

[মুনাফার স্ল্যাব বার্ষিক মুনাফা হার ৫০০১ টাকা থেকে ৫০০,০০০ টাকা =৭.৫%।
১০০১ টাকা থেকে ৫০০০.৯৯ টাকা = ৫.০%।
০ টাকা থেকে ১০০০.৯৯ টাকা= ০.০%।]

মাসিক ভিত্তিতে মুনাফা প্রদান করা হবে।প্রতিদিনের মুনাফার হার হিসাব করে মাস শেষে মুনাফা প্রদান করা হবে। বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী প্রযোজ্য ট্যাক্স বা ভ্যাট কর্তনের পর সরাসরি নগদ অ্যাকাউন্টে মুনাফার অংশ পাঠিয়ে দেয়া হবে সঞ্চয়ের মুনাফা বা লাভ গ্রহণ করতে চাইলে অবশ্যই একাউন্টটি এক্টিভ থাকতে হবে।যদি একাউন্ট এক্টিব না হয় তাহলে আপনি এই সুবিধা গ্হন করতে পারবেন না। এই অফারটি পরিবর্তন, পরিবর্ধন ও বাতিলের সর্বোচ্চ ক্ষমতা “নগদ” সংরক্ষণ করে।

নগদ একাউন্ট খোলার অফার

দেখুন! আমরা সবাই সবকিছুতে ডিসকাউন্ট আর অফার অন্বেষণ করি। আর অফার পেতে কে না পছন্দ করে বলুনতো? তাই সবসময়ই নগদও আপনার জন্য রেখেছে দারুণ দারুণ আকর্ষণীয় সব অফার। এ্যাপসে আপনি অফার বাটনে ক্লিক করলে নিমিশেই আপনি অফার গুলো সম্বন্ধে জানতে পারবেন অতি সহজেই।

নগদে রয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ে বাড়তি অনেক সুবিধা আছে। এই সুবিধাগুলো অন্য সব মোবাইল ব্যাংকিংয়ে পাবেন না।
আমার মতে নগদই একমাত্র শ্রেষ্ঠ মোবাইল ব্যাংকিং কার্যক্রম সম্পাদন করে।

নগদে রয়েছে ক্যাশব্যাক সিস্টেম

আপনি নগদে যদি গ্রাহক প্রতি ১০০০ টাকা ক্যাশ-ইন করেন তাহলে প্রতি হাজারে ৫ টাকা (০.৫%) ক্যাশ-ব্যাক পাবেন।
এ সিস্টেম আর অন্য কোন মোবাইল ব্যাংকিং আপনাকে দিবেনা। নগদই একমাত্র।
ক্যাশ ব্যাকের টাকা ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই গ্রাহকের নগদ অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে।

নগদ লেনদেন লিমিট

অন্য মোবাইল ব্যাংকিং থেকে নগদে লিমিট অনেক অনেক বেশি। এখান থেকে আপনি দৈনিক ও মাসিক অনেক বেশি পরিমাণে টাকা লেনদেন করতে পারবেন।

কম খরচায় ক্যাশ আউট

দেশে একমাত্র সবচেয়ে কম ক্যাশ-আউট চার্জ নিয়ে এসেছে “নগদ”। ৬ অক্টোবর, ২০১৯ থেকে নগদ-এর সকল গ্রাহক যেকোনো নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট থেকে ১ দশমিক ৪৫ শতাংশ মূল্যে ক্যাশ-আউট করতে পারবেন। অর্থাৎ প্রতি হাজারে নগদ এর ক্যাশ-আউট চার্জ এখন ১৪ টাকা ৫০ পয়সা মাত্র।

নগদ কোড এবং ব্যাংকিং হেল্পলাইন

নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের ইউএসএসডি কোড হচ্ছে *167#। এই কোড ডায়াল করে আপনি সব ধরণের লেনদেন করতে পারবেন।

এবং যেকোন ধরণে তথ্য জানতে অথবা সমস্যা, পরামর্শ ও অভিযোগ জানাতে কল করতে পারেন নগদ মোবাইল ব্যাংকিং হেল্পলাইন নম্বর 16167 এই নম্বরে।

নগদ কাস্টমার ম্যানেজারেরা আপনাদের সমস্যাগুলো সমাধান করতে শতভাগ প্রস্তুত। আপনাদের নগদ একাউন্ট সম্পর্কিত যেকোনো সমস্যা থাকলে বা পিন কোড ভুলে গেলেও নগদ হেল্পলাইনে কল দিতে পারেন।

সর্বোত্তম সহযোগিতা পেতে হেল্পলাইনে কল করতে কখনোই দ্বিধা করবেন না। অনাকাঙ্ক্ষিত চার্জ করা হলে বা নগদ ইন্টারেস্ট সম্পর্কে কোনো ঝায়-ঝামেলা হলেও হেল্পলাইনে কল দিতে পারেন।

উক্ত কেমন হয়েছে বা পোস্ট সম্পর্কে কোনো অভিযোগ, মতামত বা পরামর্শ থাকলে নিচে কমেন্ট করতে পারেন। ধন্যবাদ!!

অভিযোগ বক্স

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published. Required fields are marked *